History

নওগাঁ কে.ডি. সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়

নওগাঁ কে.ডি. সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় একটি ঐতিহ্যবাহী সরাকারি বিদ্যালয় যা নওগাঁ জেলায় অবস্থিত। ১৮৮৪ সালের ফ্রেব্রুয়ারি মাসে এটি স্থাপিত হয়। এটি বাংলাদেশে স্থাপিত অন্যতম পুরনো বিদ্যালয়। বিগত কয়েক বছরের পাবলিক পরীক্ষাগুলোর ফলাফল অনুসারে এটি নওগাঁ জেলার শ্রেষ্ঠ এবং রাজশাহী বিভাগের অন্যতম শ্রেষ্ঠ

স্কুল লোগো

বিদ্যালয়। এই বিদ্যালয়ে তৃতীয় শ্রেণী থেকে দশম শ্রেণী পর্যন্ত দুই শিফটে শিক্ষাদান করা হয়। নওগাঁ জেলায় একটি উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করার উদ্যোগ সর্বপ্রথম গ্রহণ করেন বাবু কৃষ্ণধন বাগচী, যিনি নওগাঁর তত্‍কালীন ডেপুটি কমিশনার এবং গাঁজা সমবায় সমিতির সুপারভাইজার ছিলেন। তার প্রচেষ্টায় কিছু জমিদার, কৃষক এবং বিত্তশালী ব্যক্তিবর্গ অর্থ সহায়তা প্রদান করেন। এটি ছিল নওগাঁ জেলায় প্রতিষ্ঠিত প্রথম উচ্চ বিদ্যালয়।

স্কুলের মূল গেট
স্কুল মিলনায়তন

 

ইতিহাস

উত্তরবঙ্গের অন্যতম শ্রেষ্ঠ মহকুমা শহর নওগাঁ। কৃষি সম্পদে সমৃদ্ধ ছিল বলেই বোধ হয় এই শহর জমিদার প্রধান স্থান হিসেবে খ্যাতি অর্জন করে। এ মহকুমার লোকদের মোটা ভাত কাপড়ের বিশেষ অভাব ছিল না বলেই তারা লেখাপড়া শেখার তেমন তাগিদ অনুভব করেনি। স্থানীয় জমিদাররা তাঁদের সন্তানদের দেশে বিদেশে বড় বড় শহরে রেখে উচ্চ শিক্ষা লাভের ব্যবস্থা করেছিলেন। ফলে তাঁরাও জনসাধারনের মধ্যে শিক্ষা বিস্তারে উদাসীন ছিলেন। এমনই এক পরিস্থিতির মধ্যে নওগাঁ মহকুমা শহরে ১৮৮৪ খ্রীস্টাব্দে একটি উচ্চ বিদ্যালয় স্থাপিত হয়। এটিই পরবর্তীকালে কে. ডি. উচ্চ বিদ্যালয় নামে পরিচিতি পায়। এটিই ছিল নওগাঁ মহকুমার প্রথম উচ্চ বিদ্যালয়।যদিও দুবলহাটিতে অবস্থিত রাজা হরনাথ রায় উচ্চ বিদ্যালয়টি ছিল নওগাঁয় প্রতিষ্ঠিত প্রথম বিদ্যালয়।

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার

প্রতিষ্ঠা

নওগাঁয় এই বিদ্যালয় স্থাপনের প্রথম উদ্যোগ গ্রহণ করেন নওগাঁর তদানীন্তন ডেপুটি কালেক্টর ও গাঁজা সোসাইটির সুপার ভাইজার বাবু কৃষ্ণধন বাগচী। তাঁর প্রচেষ্টায় সহযোগিতা করেন মহকুমার জমিদার, বিত্তশালী লোক ও কৃষকগন। সে সময় যাঁরা ১০০.০০ টাকা পর্যন্ত দান করেছেন তাঁদের নাম বিদ্যালয়ের মূল অফিস গৃহের দেয়ালে স্থাপিত পাথরের ফলকে লেখা রয়েছে। বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পর এর নামকরণ নিয়ে বিতন্ডা দেখা দেয়। তবে এর নামকরণ করা হয় বাবু কৃষ্ণধন বাগচীর নামেই (K = Krishna & D = Dhwan)। পরবর্তিতে এই নামের কোন পরিবর্তন সাধন করা সম্ভব হয়নি। ১৯৬০ সালে দ্বিতীয় পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনার অধীনে বিদ্যালয়টিকে একটি মালটি-লেটার্যাল স্কুল হিসেবে গড়ে তোলার জন্য সরকার ১,২২,০০০.০০ টাকা মঞ্জুর করে। ফলে নতুন ব্যবস্থানুযায়ী বিদ্যালয়ে বিজ্ঞান, মানবিক এবং কৃষি বিভাগের পড়াশোনা চালু হয়। ১৯৭০ খ্রীষ্টাব্দের ১ ফেব্রুয়ারি তারিখ থেকে কে. ডি. স্কুল সরকারি প্রতিষ্ঠানের মর্যাদা লাভ করে।

১৯৮৪ সালে নওগাঁ জেলা ঘোষণা হবার পর কেডি স্কুলকে জেলা স্কুল নামকরণের প্রস্তাব শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো হয়। তখনকার কর্তৃপক্ষ আলোচনা করে অনেক ভেবে চিন্তে এ প্রস্তাবকে বিনয়ের সাথে ফিরিয়ে দেন। কারণ কেডি স্কুল জেলা স্কুলে পরিণত হলে বাবু কৃষ্ণ ধনের অবদান হারিয়ে যাবে চিরতরে। তাছাড়া যদি এ প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয়া হয় তবে ন্ওগাঁ ইউনাইটেড স্কুল সরকারীকরণের মাধ্যমে জেলা স্কুলে রূপান্তরিত হবার সম্ভাবনা তৈরি হবে। এতে করে নওগাঁয় আরেকটি সরকারী স্কুল হবে। মূলত তখনকার কর্তৃপক্ষের সুবিবেচনাসুলভ সিদ্ধান্তের ফলেই কেডি স্কুল তার স্ব নামে বহাল থাকে।

তথ্য সূত্রঃ উইকিপিডিয়া